আকর্ষণীয় অফারঃ

পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং কোর্সে ৫০% পর্যন্ত ছাড়!

ভাবছেন ফ্রিল্যান্সিং করবেন? কিন্তু আপনি কি জানেন কাদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং

ভাবছেন ফ্রিল্যান্সিং করবেন? কিন্তু আপনি কি জানেন কাদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং

বর্তমানে আমাদের দেশের তরুণ প্রজন্মের নিকট ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিংয়ের প্রতি আগ্রহ দিন দিন বেড়েই চলেছে। ফলে অনেকেই না বুঝেই ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং এর দিকে ঝুঁকে পড়ছেন। কিন্তু তারা কখনই চিন্তা করেন না যে, ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং আসলে কি বা এটার জন্য কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন। অনেকেই ভাবেন, এটা খুব সহজ, শুধুমাত্র একটা কম্পিউটার ও ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই ঘরে বসে প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা আয় করা যায়। তেমন কোন পরিশ্রম করা লাগেনা।

আবার অনেকে ভাবেন, একজন ভাল মানের ফ্রিল্যান্সার যদি প্রতি মাসে লক্ষ টাকা আয় করেন, তবে আমি কম জেনে কেন? দশ পনরো হাজার টাকা আয় করতে পারবো না!! এই সব ধারণার ফলে অনেকেই ফ্রিল্যান্সিং করতে আসে। আবার যারা মাত্র নতুন কম্পিউটার কিনেছেন বা ইন্টারনেট কানেকশন নিয়েছেন তাদের ইচ্ছা, কয়েক দিন ইন্টারনেটে ঘাটাঘাটি অথবা ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিংয়ের জন্য ১০ থেকে ১৫ দিনের একটি কোর্স করলেই সে অল্প কয়েক দিনের মধ্যে ঘরে বসে প্রতি মাসে ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা আয় করতে পারবে।

এর জন্য যেমন দায়ি তথাকথিত কিছু ফ্রিল্যান্সিং ট্রেনিং সেন্টার, তেমনি দায়ি আমাদের সরকার ব্যবস্থা। আমাদের বর্তমান সরকার “ঘরে বসে আয়” নামের সারা দেশে ফ্রিল্যান্সার তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন। যেখানে মাত্র ১০ থেকে ১৫  দিনের ট্রেনিং দেয়া হয়, ফলে তারা কিছুই শিখতে পারে না এবং হতাশ হয়ে  পড়েন। আচ্ছা, আপনারা যারা কাজ করছেন ও অভিজ্ঞ তারা বলেনতো ১০ থেকে ১৫  দিনে কি ফ্রিল্যান্সিং আউটসোর্সিং শেখা যায়??

আসলে এই উদ্যোগের পিছনে রয়েছে সরকারের উপর মহলের কিছু স্বার্থান্বেষী ও অর্থলোভী কর্মকর্তা। ফলে এইসব প্রকল্পের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা বাজেট করান এবং তার একটা বৃহৎ অংশ নিজেদের পকেটে ঢুকান। এবং নিজেরাই “ঘরে বসে বড়লোক” হন!! তাছাড়া, বিভিন্ন বাস, ট্রেন বা দেয়ালের গায়ে লাগানো চোখ ধাঁধানো ও প্রলোভন দেখানো অথাকথিত প্রতিষ্ঠানের পোষ্টার বা স্টিকার তো আছেই।
freelancerতাই, নতুনদের জন্য বলবো, ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং সবার জন্য না। ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ শুরু করার জন্য আপনার অবশ্যই কম্পিউটারের প্রাথমিক ধারণা এবং ইংরেজিতে যোগাযোগ করার মত ভাল ধারণা থাকতে হবে এবং প্রচুর পরিশ্রম করার মনমানসিকতা থাকতে হবে। যাতে আপনি আপনার পরিশ্রমের মাধ্যমে ভালো কাজ শিখতে পারেন। আপনাকে নজর দিতে হবে কাজ শেখার প্রতি, টাকা আয়ের প্রতি না। এরপর আপনি কোন ধরণের কাজের প্রতি ইন্টারেস্টেড তা নির্ধারণ করুন।

এবার বিভিন্ন টিউটোরিয়াল দেখে বা আর্টিকেল পড়ে শিখতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে সময় অনেক বেশি লাগতে পারে। তাই যদি সম্ভব হয়, কোন মানসম্মত ফ্রিল্যান্সিংআউটসোর্সিং ট্রেনিং সেন্টার থেকে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন। আর কোন ট্রেনিং সেন্টার থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়ার পূর্বে অবশ্যই তাদের অভিজ্ঞতার ব্যাপারে ভালভাবে খোঁজ খবর নিয়ে নিন। এবং তাদের কোর্স কারিকুলাম বা কোর্স আউটলাইন দেখে নিন, যেখানে কি কি শিখানো হবে, তা ক্লাস ভিত্তিক দেয়া থাকে।

কারণ বর্তমানে অলিতে গলিতে বিভিন ধরণের ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং ট্রেনিং সেন্টারের অভাব নেই। আবার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন রকম প্রলোভন দেখিয়ে ভর্তি করাচ্ছে। আর সাধারণ মানুষও তাদের প্রলোভনে পড়ে ভর্তি হচ্ছে এবং শেষে কিছুই না পেয়ে হতাশ হচ্ছে।

আর একটা কথা অবশ্যই মনে রাখবেন, আপনাকে অনলাইনে ভাল আয় করতে হলে, ভাল কাজ জানতে হবে। এর কোন বিকল্প নাই।

Leave a Reply

Free WordPress Themes, Free Android Games