ই-মেইল মার্কেটিং

ডিজিটাল মার্কেটিং কি এবং কেন?

ডিজিটাল মার্কেটিং কি এবং কেন?

পৃথিবীটা কম সময়ের মধ্যে ডিজিটাল পৃথিবীতে পরিণত হতে চলেছে। মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ,  এবং আরো অনেক ইলেক্ট্রনিক্স এর মাধ্যমে ডিজিটাল কন্টেন্ট ব্যবহার মানুষের একটি দৈনিক অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং বেশিরভাগ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানই এখনো তাদের বিপণন কৌশলে এটার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করতে পারছেনা। সত্যিকার অর্থে ডিজিটাল মার্কেটিং অন্যান্য মার্কেটিং এর চেয়ে অনেক বেশি দ্রুত ,বহুমুখী বাস্তব সম্মত। ডিজিটাল মার্কেটিং একই সাথে ভোক্তা এবং বিপনণকারী উভয়েরই সমান উপকারে আসে। সুতরাং যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে মার্কেটিং এর অনেক পরিবর্তন হয়েছে। ইন্টারনেট প্রযুক্তি মাধ্যমে মার্কেটিং পদ্ধতিই হল ডিজাটাল মার্কেটিং।

ডিজিটাল মার্কেটিং ভোক্তাদের নিকট যে কোন সময় যে কোন প্রকার তথ্য পৌছে দেয়ার জন্য অন্যতম। ধরুন ডিজিটাল মিডিয়া টেলিভিশন একমুখী প্রচার মাধ্যম। এর মাধ্যমে ভোক্তার রুচি চাহিদা সম্পর্কে অবগত হওয়া যায় না। ডিজিটাল মিডিয়া খবর, বিনোদন,  কেনাকাটা এবং সামাজিক ইন্টারঅ্যাকশন একটি সদা বর্ধমান উৎস এবং ভোক্তাদের এখন না শুধু আপনার কোম্পানি আপনার ব্র্যান্ড সম্পর্কে বলেছেন, কিন্তু  মিডিয়া, বন্ধু, আত্মীয়স্বজন, সহকর্মীরা, কি বলছে সেটা যেমন উন্মুক্ত হয় এবং তারা আপনার চেয়ে তাদের বিশ্বাস করার সম্ভাবনা বেশি। মানুষ তাদের চাহিদা এবং পছন্দ মতন তারা বিশ্বাস করতে পারেন ব্রান্ডের। ডিজিটাল মার্কেটিং একমাত্র পদ্ধতি যা সর্ব স্তরের ক্রেতা এবং ভোক্তার নিকট পৌছানো যায়। এবং তাদের ব্র্যান্ড সম্পর্কে তাদের মতামত সরাসরি জানা যায়।

কেন ডিজিটাল মার্কেটিং?

প্রথমত, ডিজিটাল মার্কেটিং প্রচলিত অফলাইন মার্কেটিং পদ্ধতির চেয়েও আরও বেশি সাশ্রয়ী হয়। একটি টিভি বিজ্ঞাপন বা সংবাদপত্র অ্যাড এর চেয়ে খরচ অনেক কম। তাছাড়া ডিজিটাল মার্কেটিং পৃথিবীর যে কোন প্রান্তে বহু সংখ্যক সম্ভাব্য ক্রেতার কাছে পৌঁছতে পারে।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রতিটি ধাপ এবং পর্যায় আপনি পরিমাপ করতে পারেন। কোন ডিজিটাল মিডিয়া আপনার কতটা কাজে আসছে? কতজন প্রতিদিন অ্যাড হচ্ছে? কতজন লাইক দিচ্ছে? ওয়েবসাইটে কতজন প্রতিদিন ভিজিট করছে প্রতিটা কার্যক্রম পরিমাপযোগ্য। আপনার যদি ওয়েবে উপস্থিতি না থাকে, কিভাবে আপনি সম্ভাব্য ক্রেতাদের আপনাকে খুঁজে পাবে বলে আশা করেন? ইন্টারনেটে চমৎকার কন্টেন্ট, চমৎকার প্রোডাক্ট গ্যালারী, চমৎকার প্রোডাক্ট রিভিউ থাকে তাহলে মানুষ আপনার ক্ষেত্রে আপনাকে বিশেষজ্ঞ হিসেবে ধরে নেবে। আপনি যদি সামাজিক মিডিয়ার মাধ্যমে গ্রাহকদের এবং সম্ভাব্য গ্রাহকদের সাথে যুক্ত থাকেন, তাদের প্রশ্নের উত্তর দেন তাহলে,আপনি তাদের সঙ্গে বিশ্বাস গড়ে তুলতে পারবেন আর তখন তারা আপনার প্রতিযোগীদের কাছে নয় আপনার কাছে আসবে।

অনলাইনে এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী ৯২% ভাগ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান যারা ব্লগিং করে তারা অনলাইনে নতুন গ্রাহক পায়, প্রায় প্রতিদিন। সোশ্যাল মিডিয়ার প্রায় ১০০% বেশি লিড আসে অন্যান্য মার্কেটিং এর তুলনায়, প্রায় ৭৭% ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তাদের নতুন গ্রাহক পায় ফেসবুক থেকে। মনে রাখবেন আপনার গ্রাহকরা বেশিরভাগ সময় আছেন অনলাইনে এবং এই সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। অনলাইন ডিজিটাল মার্কেটিংএ আপনাকে এমন নতুন কোন চমৎকার কৌশল ধরে রাখতে হবে, যা সর্বদা আপনাকে আপনার প্রতিযোগীদের থেকে এগিয়ে রাখবে। আপনাকে এমন কিছু করতে হবে আপনার প্রতিযোগীদের চিন্তায় যা আসে নি।

কিভাবে শিখবেন ডিজিটাল মার্কেটিং?

বাংলাদেশে ওয়েবসাইট ডিজাইন ডেভেলপমেন্ট, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন, গ্রাফিক্স ডিজাইন ইত্যাদি শেখার অনেক ট্রেনিং সেন্টার পাবেন কিন্তু ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার জন্য ভাল কোন ট্রেনিং সেন্টার একমাত্র গাজীপুরের এ এম ওয়েব ক্রিয়েশন। আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং অন্য কোন উপায়ে শিখতে পারবেন না। শিখতে পারলেও আপনি ভাল কোন কাজ করতে পারবেন না।

তবে আর দেরী কেন এখনি চলে আসুন আমাদের এই ঠিকানায়।

AMWebCreation
House#1069, Sheikh Manshion, Shibbari Road,
(Opposite of Siam CNG Pump), Gazipur Chowrasta,
Gazipur City Corporation, Gazipur
Telephone: 0249263136
Mobile: 01881049394
E-mail: amwebcreation@yahoo.com

কিভাবে ইমেইল মার্কেটিং করা হয়?

কিভাবে ইমেইল মার্কেটিং করা হয়?

ইমেইল মার্কেটিং হচ্ছে একটি অনলাইন মার্কেটিং পদ্ধতি।ইমেইলের মাধ্যমে পন্য বা সেবার প্রচারকে ইমেইল মার্কেটিং বলে। এর মাধ্যমে আপনি আপনার পন্য বা সেবার প্রচার করতে পারবেন। বিশ্বের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য বা সেবার বিজ্ঞাপন এই পদ্ধিতির মাধ্যমে করে থাকে।

ইমেইল মার্কেটিং এর সুবিধাঃ

কিছুদিন পূর্বে ইমেইলকে শুধুমাত্র যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ধারণা করা হত কিন্তু বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে এর অনেক উন্নয়ন ঘটেছে। ইমেইলের মাধ্যমে বিভিন্ন পণ্য বা সেবার বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়। বর্তমানে বিশ্বের ছোট বড় অসংখ্য প্রতিষ্ঠান তাদের পন্যের প্রচারের জন্য ইমেইল মার্কেটিং করে থাকে।
•  এর মাধ্যমে অল্প পরিশ্রমে বেশি পরিমাণে টাকা আয় করা যায়।
•  প্রোগ্রামিং জানতে হয় না।
•  ব্যবসার জন্য উচ্চ হোস্টিং ফি খরচ করতে হয় না।
•  নিজের বা অন্যের পণ্য বিক্রি, এফিলিয়েট পন্যের বিক্রয়কৃত কমিশন ইত্যাদি অসংখ্য আয়ের ক্ষেত্র রয়েছে।
• অন্য প্রতিষ্ঠানের জন্য রিভিউ লিখে পূর্বেই সেই প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অর্থ আয় করতে পারেন।

কিভাবে ইমেইল মার্কেটিং করা হয়?

ইমেইল মার্কেটিং করার জন্য প্রয়োজন একটি ওয়েবসাইট, মার্কেটিং উপকরণ এবং পন্য বা সেবা। আপনি চাইলে নিজের পন্য বা সেবা যেমন ইবুক, টিউটোরিয়াল তৈরি করে বিক্রয় করতে পারেন অথবা অন্যের পণ্য ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে বিক্রয় করে কমিশন পেতে পারেন অথবা বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠানের রিভিউ দিয়ে বা অন্য কোথাও ভিজিটরকে রেফার করে আয় করতে পারেন। এখানে একটি বিষয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ তা হল আপনার সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা। আপনার যদি মাত্র ১০ জন সাবস্ক্রাইবার থাকে তবে তা থেকে আপনি আয় করতে পারবেননা এজন্য প্রথমেই আপনাকে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বৃদ্ধির দিকে মনোনিবেশ করতে হবে। মনে রাখবেন আপনার যত সাবস্ক্রাইবার থাকবে আপনি তত আয় করতে পারবেন এবং তত আয়ের নতুন নতুন মধ্যম তৈরি হবে।

ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে মুহূর্তেই আপনি আপনার পণ্য বা সেবাকে হাজারো গ্রাহকের নিকট এর কার্যকারীতা ও ব্যবহারবিধি তুলে ধরতে পরবেন এর ফলে আপনার পন্য বা সেবাটি জনপ্রিয় হতে থাকবে। ফলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পণ্য বা সেবার বিক্রয় বৃদ্ধি পেতে থাকবে।
বর্তমানে কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট রয়েছে যাদের মাত্র একটি প্রধান পেজ থাকে এবং শুধুমাত্র তারা ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আয় করে থাকে। অনলাইনে সার্চ দিলে এ সংক্রান্ত অনেক ওয়েবসাইট পাওয়া যাবে।

কিভাবে শিখবেন ই-মেইল মার্কেটিং

ইমেইল মার্কেটিং শেখার জন্য আপনাকে প্রচুর ধৈর্য ধারণ করতে হবে। আপনি ব্লগ পড়ে কিংবা ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখে ই-মেইল মার্কেটিং শিখতে পারেন। কিন্তু আপনি যদি একেবারেই নতুন হন তবে এটি খুব একটা কাজে আসবে না। নতুনদের জন্য আমার উপদেশ হল ভাল মানের ট্রেনিং সেন্টার। আমাদের দেশে ই-মেইল মার্কেটিং ট্রেনিং সেন্টারের অভাব নেই কিন্তু ভাল মানের ট্রেনিং সেন্টারের অভাব রয়েছে। আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, গাজীপুরে প্রতিষ্ঠিত এ এম ওয়েব ক্রিয়েশন বাংলাদেশের সেরা ই-মেইল মার্কেটিং ট্রেনিং সেন্টার। আপনি তাদের সরণাপন্ন হতে পারেন।

কেন ওয়েবসাইট তৈরী করবেন, কারণগুলো জেনে নিন।

কেন ওয়েবসাইট তৈরী করবেন, কারণগুলো জেনে নিন।

বর্তমান যুগটাই ইন্টারনেটের। কোন তথ্য জানতে হলে প্রথমেই মনে আসে ইন্টারনেটে সার্চ দেওয়ার কথা। সবচেয়ে অল্প খরচে তথ্য প্রকাশ করা এবং তথ্য জানার সহজ মাধ্যম হচ্ছে ওয়েবসাইট। অল্প খরচে যে কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তাদের প্রতিষ্ঠানের বহুল প্রচারের জন্য এটি ব্যবহার করতে পারে।

ওয়েবসাইটে যখন তখন যে কোন তথ্য প্রকাশ করা যায়।

ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে যখন ইচ্ছে দেখা যায়।

ওয়েবসাইটে যেকোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পণ্যের ছবি, ভিডিও আপলোড করা যায়।

ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে ক্রয়-বিক্রয় করা যায়।ক্রেতা বাজারে না গিয়েও আনলাইনে তার পছন্দের পণ্যটি কিনে ফেলতে পারে। একইভাবে বিক্রেতাও লাভবান হয় যদি তার একটি ই-কমার্স সাইট থাকে।

অনলাইনে আয় করার জন্যও ওয়েবসাইট থাকা অত্যান্ত গুরুতবপূর্ণ। যারা ফ্রিল্যান্সার তাদের জন্য অবশ্যই একটি পোর্টফলিও সাইট থাকা দরকার। তাছাড়া বায়ার তাদের কাজের নমুনা খুঁজে পাবেনা।

একটি ভালমানের ওয়েবসাইট থাকলে বিজ্ঞাপন দাতারা আপনার ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন দিতে আগ্রহী হবে। আর আপনি ও বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন।

আনলাইনে আয় করার একটি গুরুতবপূর্ণ মাধ্যম হলো আনলাইন শপিং ওয়েবসাইট যাকে বলে ই-কমার্স সাইট।বর্তমানে সারাবিশ্বে ই-কমার্স সাইটের প্রচুর সুযোগ-সুবিধা রয়েছে।ই-কমার্স ওয়েবসাইটে সরাসরি পণ্য বিপনন বা কমিশনের মাধ্যমে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করা সম্ভব।ওয়েবসাইটের মাধ্যমে যেকোন পণ্য সারাদেশের ক্রেতাদের মাঝে পৌঁছে দিতে একটি ই-কমার্স সাইটের ভূমিকা আতিব গুরুতবপূর্ণ।

এরকম আরও অনেক অনেক সুবিধা রয়েছে যা বলে শেষ করা যাবেনা।আপনি নিজেই জানতে পারবেন যদি ওয়েবসাইট তৈরী করেন বা কোনভাবে এর সাথে যুক্ত হন।আমার তো মনে হয় ইন্টারনেট ,ওয়েবসাইট ছাড়া এখন আর মানুষ কিছু ভাবতেই পারেনা। এমন কোন বিষয় নেই যার জন্য ইন্টারনেটে সার্চ পড়েনা।আরও বিস্তারিত জানতে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন

Increase Search Engine Crawl Rate

Increase Search Engine Crawl Rate

Search Engine Optimization service area simple and successful tips to increase site crawl speed
Firstly update your site content regularly and the content should be carries out the keywords what you want to show to traffic.

Increase your page rank with Google as the entire search engine high PR site crawl rate high,

Server is the most effective issue for visitor as no one want to stay in site for more times to load, as 80% of visitor are comes from search engine and search engine dose not shown only your site, so page load speed is too impotence for web site Google crawl.

Avoid duplicate content its mean don’t update any copy content what already published in some others site, duplicate content against of Google search engine quality.

Building block right of entry to not needed page via robots.txt

Using Google webmaster tools check and optimize Google crawl rate, by WMT you can see your site crawl rate now.

Once update your content most welcome to use ping services to demonstrate your site being there and give permission to bots recognize when your site content is reorganized

Once complete site submit to online directories,
Make alt tag to the entire use image in the site,
Overall use social media service once published you content and that will make you site crawl rate,

You are most welcome to our Service and Training

SEO Service by AMWebCreation in Gazipur, Dhaka, Bangladesh,

SEO Training from Gazipur, SEO Training,

Save

How to use Meta Tags within webpage

How to use Meta Tags within webpage

How to use “Meta Tags” within your webpage

When a user searches from a search engine or directory, the user enters words into a text box and presses the Search button. The words that the user enters are referred to as keywords. The server at the site that is being searched looks within a database for records that include those keywords. It then creates a page that lists some or all of the records that it found and includes links to the locations of those records.

The search engines and directories acquire their lists of keywords from several places. The most common method involves submissions. Many sites ask for a description of your site when you submit your URL, and they acquire keywords from within that description. Some sites provide separate boxes for you to enter your keywords.

Some search engines use automated software programs known as robots to gather information about web pages. These robots read the text and codes on web pages then store keywords and other information from the pages into their databases.

There are several things you can do to your web site that will prepare it and help it to be found when users do searches. These involve adding keywords to your pages within the first paragraph, within hidden [META] fields, specifying “type”, “source”, and “use”, and including keywords with your submissions.

Using keywords within the first paragraph

When a search engine uses a robot to gather information about your pages, they typically store the first few words (up to 200 characters) they find on your pages. These words are used as your keywords and are often presented as a description of your page.

Although the trend is towards graphical pages, a page that includes all graphics and no text will not likely be found during a search from many sites that use these robots to gather information. Likewise, a site that starts with a lot of promotional hype and little or no keywords will not likely be found either.

When designing a page, the author should try to use as many keywords as possible and include them within the first text that appears on the page. For example:

Poor
Welcome to AMWebCreation, Come on in and check it out! Our site has all the best website design service in the world at the lowest cost on the net and we guarantee your satisfaction . . .
Good
AMWebCreation is the best web design, development, Graphics design, SEO, SMO and professional IT training center in Gazipur, Dhaka, Bangladesh.

 

Using keywords within hidden <META> fields

Some search engine robots allow you to specify keywords, descriptions, and other information within hidden fields on your pages. When hidden fields are available, the robots use information from them rather than from the text that shows. Use the [META] tag within the [HEAD] element to do this. The basic syntax is:

<META name=”description” content=”Write your description here”>

Do not use any HTML tags within the “description” or “content” part of the META tag.

Suppose the HTML at the top of your web page looked like:

<HEAD>

<TITLE>AMWebCreation</TITLE>

<META name=”description” content=” AMWebCreation is the best web design, development, Graphics design, SEO, SMO and professional IT training center in Gazipur, Dhaka, Bangladesh.”>

</HEAD>

The following title and description would appear when your page is listed on a page of search results:

AMWebCreation Home Page

Home page AMWebCreation is the best web design, development, Graphics design, SEO, SMO and professional IT training center in Gazipur, Dhaka, Bangladesh.

Specifying keyword phrases:

You can use a second [META] tag to specify keyword phrases that further describe your web page. The basic syntax is:

<META name=”keywords” content=”Write your keywords here, in a comma separated list”>

For example:

<HEAD>

<TITLE> Your site name </TITLE>

<META name=”description” content=” Your site description. “>

<META name=”keywords” content=” Your target keywords”>

</HEAD>

Using <META> Tags to specify type, source and use

Some search engines utilize advanced forms of artificial intelligence to focus searches on specific types, sources and uses of the information provided in web pages. The AddURL form allows you to specify this information during submissions, but you should also include it within [META] Tags to allow robots to find it.

Specifying Types

The “type” field refers to the type of information that is provided on the web page. The most common types include “Home Page”, “Advertisement”, “Description”, “Entertainment”, “General”, “News”, “Personal”, “Quick Tour”, “Technical”, and “User Manual”. You should try to use one of these choices, and an example of the basic syntax is:

<META name=”type” content=”User Manual”>

Specifying Sources

The “source” field refers to the type of organization or person that is providing the information on the web page. The most common sources include “Advertise/Marketing”, “Association”, “Broker”, “Business Opportunity”, “Consultant”, “Contractor/Builder”, “Distributor”, “Education/Training”, “Engineer/Architect”, “Financial Service”, “Food/Drink Service”, “Government”, “Internet Service”, “Legal Service”, “Manufacturer”, “Manufacturer’s Rep”, “Military”, “News Service”, “Organization”, “Personal/User”, “Publication”, “Realtor”, “Research & Develop.”, “Retailer”, and “Service Provider”. You should try to use one of these choices, and an example of the basic syntax is:

<META name=”source” content=”Manufacturer”>

Specifying Uses

the “use” field refers to the primary application for which the information is intended. The most common uses include “Art & Entertainment”, “Business”, “Computers & Internet”, “General”, “Home”, “Life, Health & Sports”, “Literature & Science”, and “Transportation”. You should try to use one of these choices, and an example of the basic syntax is:

<META name=”use” content=”Art & Entertainment”>

 

Notes on Using <META> Tags and Images

Length of description and keywords

Your description can include up to 160 characters of text. The keywords can include up to 1000 characters of text.

Overusing keywords

Do not repeat the same keyword more than 7 times in the [META] tag. If you do this, the search engine may ignore the entire list of keywords.

Sites using Netscape or Microsoft frames

in your main HTML file (the file containing the [FRAMESET] tags), you should include a description of your site using [META] tags. Make sure that your description and keywords adequately summarize the contents of the frames on your page.

Sites using JavaScript

If JavaScript functions make up the first 200 characters on your page, you should use [META] tags to provide a description for your page.

Sites using images

Some sites also store the ALT attribute in the <IMG> tag. If your site mainly consists of graphics, you can also use the ALT attribute to describe your page.

Using keywords within submissions

The vast majorities of search engine and directory sites do not obtain keywords from your page automatically, and instead use information provided by you when you submit your pages to their site. Most of these sites extract the keywords from within the description text that you provide with your submission, while some require you to enter keywords in separate text boxes.

When submitting a page, the author should try to use as many keywords as possible and include them within a sentence in the description box. For example:

Title:
AMWebCreation
Keywords:
Web design
Web development
SEO
SMO
Description:
AMWebCreation is the best web design, development, Graphics design, SEO, SMO and professional IT training center in Gazipur, Dhaka, Bangladesh
Importance of business website

Importance of business website

In 21st competitive year, when anyone hears something about new business organization or business related information, they first search that how many of them have their own websites. Similarly, in this modern age, everyone is conscious about the importance of a website for all business. If any business is out of its own websites, it will out of influential marketing tools and regarding benefits.

On the contrary, a website is an assortment of pages which represents an organization, business firms, and industry with the help of www (World Wide Web). All the significant and needed information is describe through text, images, videos, audio and animations. Business holders or people can discover any kinds of information or supported documents within the shortest period of time and easiest way.

How to Recognize Good Business Websites

All the websites which we can see are not the good and quality website always. Sometimes, we cannot find relevant topics in websites. We may have found various websites but all those are not work worthy at all. Viewers want to know and see something good, well organized, coherent, relevant and interesting websites. In order to find good business websites, we advise you to check those below things-

• Content: Everyone wants to see well organize writing with some interesting keywords, highlights and other related objects. You have to confirm those things first.
• Components: The web functions should be error free and correct utilization of interfaces. A good components website carries hyperlinks, contact address, anchor text, details, features and navigation buttons as well.
• Brand Name: The brand names that produce this website are really very significant.
• Graphics: It is the most important and critical part of any websites. So, viewers should give high emphasis on it.
• Search Engine Optimism: Search Engine Optimism creates valuable and effective websites including all features. Good websites must follow the SEO rules.

Reasons of becoming Business Website Important

Nowadays, with great deal of the popularity of Facebook, Twitter, Blogs and other applications, Business Websites still gets importance among people. Because of some major reasons Business Websites are able to maintain its importance as before. Here are the reasons_

• Convenience: People can easily find out their business information and data by using those websites.
• Security: These types of websites are more secure and logical than any other websites.
• Domination: Everyone wants to make their own identity and this website makes it for business holder and related people.
• Chances: It provides chances to make own business websites for beginners and professional as well.
• Measurement: All the tactics and promotions can be measured very swiftly without any doubts. It is relevant to requirement websites.

Popularity of Business Website
Evidently, people of any countries and any cultures are supporting and preferring this websites. It has been getting more and more popularity in web world. Business websites are usually hosted by professional business owner who wants to host his website through internet and other online applications. That is why; these websites are quite unique comparing to others. Even, 24/7 these websites helps you from many sectors. A viewer who wants to gain knowledge from websites, they take help from it and increase their business as well as customers. Moreover, it demonstrate full path of becoming successful business men. Above discussion are the reasons of getting popularity from people.

DESCRIPTION
Importance of Business Website is increasing day by day. Because it helps to establish creditability like business, it is an effective source of attract people.

What need to check for complete On Page SEO?

What need to check for complete On Page SEO?

Hey friends we are going to discuss today about in-page/on page seo analysis, to make your website popular what should you need to check? This post for on page ranking factors, and can calculate on page SEO elements, and by the way we will understand the In-page SEO analysis, and as a reader you will be understand the on page SEO techniques too, Okay come to the below steps by steps, For a expats SEO all of you should flow this
First

You should have a best Title and then description and then you have to have put some target keywords,

Now come to example

Title

Example: AMWebCreation

Meta Description

Example: AMWebCreation is website design, development, SEO, SMO, CMS, eCommerce, clipping path, logo design & IT training center in Gazipur, Dhaka, Bangladesh

Meta Keywords

Example: website design, development, SEO, SMO, CMS, eCommerce, clipping path, logo design, IT training center in Gazipur,

Note- Please keep in mind all the keywords should be separate by comma (,) and descriptions not more than 155 characters’ and keywords you can use as much as you want, but putting too much keywords in a site without a better solutions for that that will make a spamming.

Now we are in second stage

What we need to see here and add to site

Add a nice logo, this will make your site and identity is in professional manner,

Favicon also is a unique identity of your organization,

Language

Use readable language for your website and make aware to search engine about your using language of your website increases readability of your webpage,

Page load speeds

Page load speed is most importance for visitor, as most of visitor are coming by search engine and search engine not only showing your site, so if your site loading slowly then visitor will visit some others site, this is nature of visitor, so be care full about your load speed. How to speed up you site is here?

URL Analysis

For example http://www.amwebcreation.com

This kind of URL’s are in a perfectly manner, no need to change anything here.

Text/HTML

You should add in supplementary textual article in your website, but if your website is not content based then try to focus on the little content that you have to make it keyword rich and matching in context to your webpage.

Images alt tag,

Use all the image alt tag for search engine, without alt tag search engine can’t found your site image in search result.

Inline CSS

Be careful about in line CSS, sometimes a lot of error can shown in CSS and as a result your site will be no index in search engine.

Email Address

Plain text email addresses are an inspiration to spammers and scammers so don’t use plain text email in your site

Check all the W3C Validity

Check if you have any broken link

Submit the site to search engine and create a good sitemap and submit to search engine.

Security Status

To check your site security status you can use;

McAfee site advisor

Norton safe web

Web of TrustWOT

Google safe browser

And over all almost you have to off your server signature

Information Technology Infrastructure Library Certification

Information Technology Infrastructure Library Certification

In 21st century every business organization wants to increase their profits by using IT and management services. For that reason, ITIL (Information Technology Infrastructure Library) certification is known as a collection of the best preparation stock for Information Technology (IT) service management. It is connected with computer and telecommunication procedure. Every company is now rely on IT for making plans, working, collecting data, producing and many other vital work. ITIL certification is a sector where hi-tech possessions of any companies are saved according to its main concern and necessities. Its main source is hardware, software, network, data and data related facilities. It is introduced the most broad noticeable set of IT services.(Information Technology)

 

*Description of ITIL Certification

It is formed by the British Government in 1980s to give people standard knowledge and proper utilization on IT. First ITIL book was published on 1989-1996s with 30 volumes. For its noticeable publicity and demand it was published on 2000, 2001, 2007 and 2011 respectively. This book contains 8 separate groups on it management. It is more affordable and inexpensive. On July 2013 AXELOS Ltd was owned ITIL upgrading it. Now it has 44volumes in its 8th edition. To achieve ITIL certification this book is mandatory.

 

* Cost and course description of ITIL Certification

Generally, it is familiar as a cost saving course but it has very little cost according to its necessity. This may 3days courses $800-1100 (USD) and 5days courses cost around $3000 (USD). It reduces the long term cost and courses. To cope with the cope with challenging world, it opens new dimension with real world example to increase IT (Information Technology) quality and supply services.

Usually, there are two types of training off-peak and on-peak training. These two has different impact and time limitation as well.

Off- Peak: This training has numerous formats. In this training candidates get 3days in week or in a weekend to focus on education for those who does not have enough time.

  1. On-Peak: In a On-peak training method candidates can get training on a working hour like 9-5pm from Friday to Saturday.
  2. On-line: People can learn more things about ITIL through internet and online courses.

 

*ITIL Viewers

Normally, business related people are the viewers of ITIL. Sometimes, we can see private and public viewers of it. On the other words, a person who wants to achieve his target, they take help from it. It not only helps in IT sector but also helps to make successful project. Besides, it ensures 50% chances of excellent project. Because, using this source in project management, analyst can include much information on IT at a easy way. Similarly, it’s quite easy to find out any data about project or industrial narrate topic. ITIL is not based on any specific organization, but any kinds of organization can find its effective IT sources through it. There are the opinions on of two viewers:

1 Private Students: Private viewers are those who want to qualify and get certification regarding some requirements. This types of viewers gain credits with the help of certification. Basically students are part of this section.

 

  1. Public Students: Public viewers are those who is doing business or other occupations and want to get idea in ITIL to compete with the competitive world. They want to progress their skills, efficiency and workability.

 

*Levels of ITIL Certification

ITIL Certification has some crucial levels according to its students and credit systems. All types of students should follow these levels to achieve their targets:

 

  1. Problem Solution Analyst: If a candidate falls into trouble, how they will overcome and prevent it. This course is designed by APMG international. It gives 1.5 credits.

 

  1. IT service management Foundation: It is based on IT ISO or IEC 20000 to give students idea about principles, practices and manners on IT. It has 1 credit.
  2. IT Lean: It teaches candidates how to reducing cost, add values, hardness, and changeability. It has 0.5 credits.

 

  1. CPDE: Its full form is Certified Process Designer Engineer. It includes IT services, management, designing, documentation, and project. It is worth 1.5 credits.

 

  1. ASL2: It is based on some practical tasks. It judge candidates practical sense. It gives 1 credit.

 

Besides these levels of credits candidates can receive additional credits like BiSL -0.5 credits, change analyst 1.5 credits, Database management 1.5 credits.

 

*ITIL Certification Aims

Its aim is to provide best technique on it sector reduce problem in management, chenge management theories, and ensure best working force all over the world.

These are the common aims of ITIL Certification:

  • Continuous improvement in services
  • Ensure Operation service
  • Increase Lifecycle
  • Designing Information
  • Transaction of Data
  • Provide key concepts
  • Plan effective strategy
  • Assure well-know job
  • Build up working power

Those are the most familiar aims of it. But, it aim is not limited just these factors, aims will be increased according to its users thinking.

Consequently, ITIL Certification is demand able and acceptable worldwide. It plays typical vital role to train individual with various modules and ways which the organization needs to secure their identity, and candidates need to boost up their lives.

Want to get a professional IT Training from AMWebCreation? We are ready to give you all the support what you want. See the details of our training here.

ই-মেইল মার্কেটিং কী? কেন ই-মেইল মার্কেটিং শিখবেন?

ই-মেইল মার্কেটিং কী? কেন ই-মেইল মার্কেটিং শিখবেন?

ই-মেইল মার্কেটিং কী?

বর্তমান প্রজন্মের নিকট যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে ই-মেইল। ই-মেইলের মাধমে বন্ধু বান্ধব আত্নীয় স্বজনের সাথে খুব সহজেই যোগাযোগ করা যায়। কোন সেবা বা পন্যের প্রচার করার জন্য যদি কোন ব্যক্তিকে ইমেইল করা হয় তবে তাকে ই-মেইল মার্কেটিং বলে।

সম্প্রতি ফ্রীল্যান্সিং এর অন্যতম মাধ্যম ই-মেইল মার্কেটিং। ই-মেইল মার্কেটিং এর কাজ শিখে প্রতি মাসে ২০-৩০ হাজার টাকা আয় করা সম্ভব। তাছাড়া Belancer, upwork, freelancer ইত্যাদি মার্কেটপ্লেসে ই-মেইল মার্কেটিং এর কাজের প্রচুর চাহিদা রয়েছে।

আপনি কেন ই-মেইল মার্কেটিং শিখবেন?

  • ১। আপওয়ার্ক সহ প্রায় প্রতিটি মার্কেটপ্লেসে এই সেক্টরে কাজের পরিমান অপরিমেয়।
  • ২। কাজের কোয়ালিটি নিয়ে ভাবতে হয় না কেননা কাজের ৯০% ই প্রফেশনাল সফটওয়্যার করে থাকে আপনি শুধু সফটওয়্যারকে দেখিয়ে দিবেন কিভাবে কি করতে হবে।
  • ৩। বায়ারের জন্য সহজেই ডেমো তৈরি করে দেয়া যায় যেহেতু যদি আপনার সংগ্রহে প্রচুর ইমেল আইডি ও সফটওয়্যার থাকে।
  • ৪। আপনি কখনোই ক্লান্ত হবেন না। সফটওয়্যারকে কাজের নির্দেশনা দিয়ে আপনি ছোট্র একটি মেডিটেশন করে ফেলতে পারবেন।
  • ৫।বায়ার ইমেল এড্রেস প্রভাইড করলে আপনার কাজ অনেক সহজ হবে।
  • ৬। সংগ্রহ মহাসাগরে রুপ নিলে আপনি নিজের প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন করতে পারবেন।
  • ৭। ইমেল এড্রেস বিক্রয় করেও তো মাঝে মধ্যে আয় করা যায়।
  • ৮। প্রয়োজনীয় কোম্পানীকে সরাসরি আপনার অফার জানিয়ে মেইল করে কাজ জোগাড় করতে পারবেন।
  • ৯। ইমেল মার্কেটিং এ প্রফেশনাল হওয়ার জন্য মাসের পর মাস অপেক্ষা করতে হয় না। কিছু সংগ্রহ থাকলেই শুরু করা যায়।
  • ১০। আপনি ইংরেজী জানেন না, আপনি ডিজাইন জানেন না, আপনি আরেক জনের সাথে প্রতিযোগীতায় ঠিকে থাকতে পারেন না আসলে কিছুই না জানলেও সমস্যা নাই। ইমেল মার্কেটিং এর দুই চারটি সফটওয়্যার ব্যবহার করা জানলেই চলবে।

বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ আইটি প্রতিষ্ঠান এএম ওয়েব ক্রিয়েশন হতে আপনি আকর্ষনীয় মূল্যে ই-মেইল মার্কেটিং শিখতে পারেন।এএম ওয়েব ক্রিয়েশন আপনাকে কাজ শেখার পর কাজ পাওয়ার নিশ্চয়তা প্রদান করছে।

অনলাইনে ভর্তির জন্য এখানে ক্লিক করুন।

যোগাযোগের ঠিকানা

এএম ওয়েব ক্রিয়েশন

বাড়ি নং#১০৬৯, শেখ ম্যানশন

গাজীপুর চৌরাস্তা (সিয়াম সিএনজি পাম্পের বিপরীতে)

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন

গাজীপুর।

মোবাইলঃ ০১৮৮১০৪৯৩৯১,০১৮৮১০৪৯৩৯৪,০১৮৮১০৪৯৩৯৬

ইমেইল মার্কেটিং শিখুন বেকারত্ব দূর করুন

ইমেইল মার্কেটিং শিখুন বেকারত্ব দূর করুন

ইমেইল মার্কেটিং হচ্ছে অনলাইন মার্কেটিং এর একটি শাখা। এটি এমন একটি মার্কেটিং পদ্ধতি যার মাধ্যমে আপনি আপনার পন্য এবং সেবা সম্পর্কিত তথ্য সরাসরি সম্ভাব্য ক্রেতার নিকট প্রচার করতে পারেন। বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছোট বড় প্রায় সব প্রতিষ্ঠান-ই এই পদ্ধতির মাধ্যমে তাদের আয় বৃদ্ধি করছে।

ইমেইল মার্কেটিং এর সুবিধাঃ

এইতো কিছু দিন পূর্বেই ইমেইলকে শুধু যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ভাবা হতো কিন্তু বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে সাথে ইমেইলেরও অনেক উন্নয়ন ঘটেছে। বর্তমানে বিশ্বে ছোট বড় অসংখ্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা তাদের পন্য বা সেবা প্রচারের জন্য ইমেইল মার্কেটিং করে থাকে । ইমেইল মার্কেটিং এর বহুবিধ সুবিধা রয়েছে । নিচে ইমেইল মার্কেটিং এর সুবিধাগুলো আলোচনা করা হলঃ-

১.  অল্প পরিশ্রমে এবং স্বল্প সময়ে অর্থ উপার্জন করা যায়।

২. ওয়েব ডিজাইন এর খুব বেশি প্রয়োজন হয়না।

৩.  আপনাকে উচ্চ পরিমানের হোস্টিং ফি খরচ করতে হবেনা।

৪.  নিজের ওয়েবসাইটের প্রচার, সেবা বিক্রয়, অন্যের পণ্য বিক্রয় এবং পন্যের বিক্রয়কৃত কমিশন ইত্যাদি সহ বিভিন্ন উপায়ে আপনি আয় করতে পারবেন ।

৫. অন্য প্রতিষ্ঠানকে রেফার বা তাদের জন্য রিভিউ লিখে পূর্বেই সেই প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অর্থ আয় করা যায় ।

ইমেইল মার্কেটিং কিভাবে করতে হয়?

ইমেইল মার্কেটিং এর জন্য আপনার প্রয়োজন একটি ওয়েবসাইট, মার্কেটিং তথ্যসমূহ এবং পন্য বা সেবা। আপনি চাইলে নিজের পন্য বা সেবা যেমন ইবুক এবং টিউটোরিয়াল তৈরি করে বিক্রি করতে পারেন অথবা অন্য প্রতিষ্ঠানের পন্য বিক্রয় করে কমিশন পেতে পারেন বা বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠানের রিভিউ দিয়ে বা অন্য কোথাও ভিজিটরকে আমন্ত্রনের মাধমে করে আয় করতে পারেন। এখানে একটি বিষয় খুবই গুরুত্বপূর্ণ আর তা হল আপনার সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা। আপনার যদি খুব কম সাবস্ক্রাইবার থাকে তবে তা থেকে আপনি আয় করতে পারবেন না। এজন্য প্রথমেই আপনাকে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়াতে হবে । মনে রাখবেন, আপনার সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা যত বেশি থাকবে আপনি ততো বেশী আয় করতে পারবেন।

কোথায় ইমেইল মার্কেটিং শিখবেন?

আপনি ইমেইল মার্কেটিং শেখার পূর্বে ভালো মান সম্মত একটি ট্রেনিং সেন্টার এর সাথে যোগাযোগ করুন। তাই আপনাকে প্রশিক্ষন গ্রহনের পূর্বে ভালো মানের ট্রেনিং সেন্টার বেছে নিন। যারা আপনার চাহিদা অনূযায়ী প্রশিক্ষণ দিবে। যেমন-গাজীপুরে অবস্থিত এ এম ওয়েব ক্রিয়েশন মান সম্মত একটি  ট্রেনিং সেন্টার।

যোগাযোগের ঠিকানাঃ

বাড়ি নং#১০৬৯, শেখ ম্যানশন

এ এম ওয়েব ক্রিয়েশন

গাজীপুর চৌরাস্তা (সিয়াম সিএনজি পাম্পের বিপরীতে)

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন

গাজীপুর।

মোবাইলঃ ০১৮৮১০৪৯৩৯১,০১৮৮১০৪৯৩৯৪,০১৮৮১০৪৯৩৯৬

 

তাছাড়া আপনি অনলাইনে ভর্তির জন্য এই লিংকে ক্লিক করুন।

আমাদের সাথে থাকুন

ফেসইবুক
টুইটার
গুগল প্লাস
গুগল ম্যাপ

Free WordPress Themes, Free Android Games