আকর্ষণীয় অফারঃ

পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং কোর্সে ৫০% পর্যন্ত ছাড়!

সাধারন বিভাগ

What is Automation Testing?

What is Automation Testing?

In particulate, Automation Testing is known as Automation Testing Software which is widely used to execute per-characters tests on a software application prior it is launched into production. In true sense, Automation Testing is lettering and protection code. This code is written by Task of automated business. In this process numerous structures has been executed by commercial sellers and testing companies. Using this process have some specific reason like fill up the gap of new development system and assure that customers can use a qualitative and quantitative merchandise which out of bugs. If anyone is developer alternatively tester, he/she will have to select good testing automation software from markets. This is the easiest way to examine new software develop programs performances and quality.


What is Automation Testing Interface

Automation testing Interface are stages which gives a particular work tasks for integrating various testing instruments for system software and other tasks as well. Automation testing interface is quite a mapping tests theory. To maintain test scripts this process are continuously improving with suppleness and competence. Automation Testing Interface is working through below three modules –

Engines of Interface: This interface is usually built at the top of atmosphere. It is work through test runner and parser equally. Through test parser specific files are coming from and through test runner we can see test results.

  • Environmental Interface: This process consist project library and related sectors. This section emphasis specific under the application test.
  • Purpose of Storehouse: It is a collection of application where data are recorded by using various testing instruments.

What is Automation Testing Tools

There are great deals of automation testing tools in this software world. This type of automation tools can be seen in mobile, laptop, tab, pc and many other modern devices. We can see variety of tools which provides functional and excellent testing environment like Aptest. Customers can find huge varieties at choosing which types of tools they have to select. There are several testing intruments name are given below here-

  • Concordion
  • eValid
  • JMETER
  • JUNIT
  • PESTT
  • Ranorex
  • Selendriod
  • Selenium
  • SoapUI
  • Zucchini
  • Sure assert Exemplars

What is Automation Testing Advantages

It is known by everyone that Automation Testing Advantages are very huge and beyond any bindings. We cannot feel the positive sights of its. But when we use it, in that time we test these tools. There are some specific advantages illustrate below here-

This module can run very fast

  • It is very up to date module
  • Its impact is quite consistent
  • Save testing time
  • Test applications and discover bugs and faults
  • Solve the complications of software
  • Decrease manual testing efforts
  • Support long time automation
  • Convenience of maintenance tools
  • Well planned and designed apps
  • Remove all threats and risk of any apps

DESCRIPTION

In today’s world everyone gives emphasis on knowing what are Automation Testing and the way to use it in daily correspondence. Its popularity is increasing for this reason.

About AMWebCreation

About AMWebCreation

AMWebCreation is a name in the word who was trying to develop their self from 2012 in the area of website design, development, SEO, SMO, clipping paths, professional graphics studio, email marketing, logo design and domain hosting service area in Bangladesh, now we have added professional IT training center in Gazipur.

Why AM Web Creation?

We have started the project in Gazipur to make a digital Bangladesh by making you website to show you to the world and make you update about digital by build, by borne by training. As we are special in CMS Development, wordpress development, eCommerce development, blog development with any area in HTML, CSS, PHP, MYSQL, PHPmyadmin, Jquery, JAVA and we have a special talent team in our development center.

Our Service

Web Design
Web Development
Wordpress Development
Joomla Development
E-Commerce Development
SEO
Graphics Design
Logo Design
Business Card
Clipping Path
Color Correction
Drop Shadow
Image Manipulation
Image Masking
Image Retouching
Multiple Clipping Path
Natural Shadow
Neck Joint or Ghost
Raster to Vector
Reflection Shadow
SMO
Email-Marketing
Domain Hosting
Online Marketing

Training Package

Web Design (HTML) Training

Training Fee : 10,500
Training duration: 1.5 months
Number of Session: 15 (15X2 hours)

Web Development Training

Training Fee : 15,500
Training duration: 2 months
Number of Session: 20 (20X2 hours)

WordPress Development Training

Training Fee : 15,500
Training duration: 2 months
Number of Session: 20 (20X2 hours)

Joomla Development Training

Training Fee : 15,500
Training duration: 2 months
Number of Session: 20 (20X2 hours)

E-Commerce Development Training

Training Fee : 15,500
Training duration: 2 months
Number of Session: 20 (20X2 hours)

SEO Training

Training Fee : 12,500
Training duration: 2 months
Number of Session: 20 (20X2 hours)

Graphics Design Training

Training Fee : 15,500
Training duration: 2 Months
Number of Session: 20 (20X2 hours)

Logo Design Training

Training Fee : 8,500
Training duration: 1.5 Months
Number of Session: 15 (15X1 hours)

SMO Training

Training Fee : 12,500
Training duration: 2 Months
Number of Session: 20 (20X2 hours)

Email-Marketing Training

Training Fee : 12,500
Training duration: 2 Months
Number of Session: 20 (20X2 hours)

Freelancing Training

Training Fee : 8,500
Training duration: 1.5 Months
Number of Session: 15 (15X1 hours)

Spoken English Training

Training Fee : 3,500
Training duration: 2.5 Months
Number of Session: 20 (20X1 hours)

Corporate Office

AMWebcreation
House#1069, Sheikh Manshion,
Shibbari Road,(Opposite of Siam CNG Pump)
Gazipur Chowrasta,
Gazipur City Corporation,
Gazipur
Phone +88 02 9263136
Mobile +88 01846288000
Skype: am.webcreation

 

Dhaka Office

AMWebcreation
House-2709,
Road- Taltola, Nordapara,
Dhakkin Khan
Ashkona, Uttara
Dhaka-1230
Phone +88 02 49263136
Mobile +88 01846288000
Skype: am.webcreation

ব্লগ থেকে আয় করুন

ব্লগ থেকে আয় করুন

বর্তমান বিশ্বে একটি জনপ্রিয় শব্দ ব্লগিং বা ব্লগ থেকে আয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ব্লগাররা ব্লগিং করে অনলাইন থেকে প্রচুর অর্থ উপার্জন করছে।বাংলাদেশের ব্লগাররাও পিছিয়ে নেই।যদি ভাল মানের ব্লগ পাব্লিশার হতে পারেন তবে অন্যান্য কাজের চেয়ে কম পরিশ্রমে সারাজীবন প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

ব্লগিং হচ্ছে এমন এক ধরনের ব্যবসা যেখানে আপনাকে আগে ভাল মানের তথ্য সমৃদ্ধ একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। এবং সেখানে এই তথ্য পড়ার বা জানার জন্য যখন বিভিন্ন লোকজন আপনার ওয়েবসাইটে আসতে থাকবে তখন সেখানে আপনি বিজ্ঞাপন বসিয়ে ব্লগ থেকে আয় করতে পারবেন।

এখন যারা ফ্রিতে বিভিন্ন ব্লগে লেখালেখি করেন, তাদের নিশ্চয় মনে হচ্ছে আপনার নিজেরই একটি ব্লগ থাকতে পারে।ভাবুন একবার, আপনার মূল্যবান সময় বিনা মূল্যে অন্যকে দিচ্ছেন আর যার ব্লগ তিনি আপনার শ্রম দিয়ে প্রচুর টাকা উপার্জন করছে। তাই যারা লেখালেখি করেন তারা সময় নষ্ট না করে একটি ব্লগ তৈরি করে ফেলুন।

এখন কথা হচ্ছে কি বিষয়ে ব্লগ করবেন

আপনি কোন বিষয় নিয়ে লিখতে পছন্দ করেন বা অন্যকে জানাতে চান,তাই নিয়ে লিখুন না? আপনার চিন্তা-ভাবনা ,পরামর্শ অন্যের কাছে পৌঁছে দিন।অথবা আপনার কোন ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান থাকলে সেটা নিয়ে ব্লগ করুন।

এছাড়াও প্রতিনিয়ত আয়ের নতুন নতুন অসংখ্য পদ্ধতীর সৃষ্টি হচ্ছে। তাই আপনাকে বিষয়গুল ভালভাবে জানতে হবে, জানতে হবে কোন পদ্ধতি আপনার ব্লগের আয়ের পরিমানকে বৃদ্ধি করবে।

  কিভাবে ব্লগ থেকে আয় হতে পারে?

বর্তমানে ব্লগ থেকে আয় করার সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে বিজ্ঞাপন।তবে মনে রাখতে হবে বিজ্ঞাপন থেকে আয় করতে হলে আপনার ব্লগটির জনপ্রিয়তা থাকতে হবে অর্থাত প্রচুর ভিজিটর থাকতে হবে।ভাল মানের ব্লগ হলে আপনি গুগল এডসেন্স পেতে পারেন।

এডসেন্স কি?

এডসেন্স হোলো গুগলের একটি এডভারটাইজ সার্ভিস। যা গুগুল এডওয়ার্ডের মাধ্যমে এডভারটাইজারের কাছ থেকে এড সংগ্রহ করে এডসেন্স এর মাধ্যমে পাব্লিশার দের ওয়েব সাইটে এড প্রদর্শন করে থাকে। এবং পাবলিশার হোলো তারাই যাদের ওয়েবসাইট এডসেন্স দ্বারা ভেরিফাই হয়েছে। এডসেন্স এর এডভারটাইজ যখন পাব্লিশারদের ওয়েবসাইটে প্রদর্শিত হয় এবং ভিজিটর যখন সেই এড-এ ক্লিক করেন, তখনি পাব্লিশারের একাউন্টে সেই ক্লিকের টাকা চলে যায়।

উদাহরনঃ ধরুন আপনার একটি ওয়েবসাইট রয়েছে এবং সেখানে এডসেন্স এর এড লাগানো রয়েছে । আপনার ওয়েবসাইট দেখতে এসে যদি কোন ভিজিটর এই এডে ক্লিক করে তাহলে সেই ক্লিকের জন্য আপনি টাকা পাবেন।

এডসেন্স কেন ক্লিকের জন্য টাকা দেবে?

যেমন ধরুন, গ্রামীনফোন বা বাংলালিঙ্ক কোম্পানী দুটি তাদের পণ্যের এড বা বিজ্ঞাপন ইন্টারনেটে প্রচার করতে চায়, তাখন তারা কি করবে? কোথায় তারা হাজার হাজার ব্লগ বা ওয়েবসাইট খুজে পাবে? আর কার ব্লগেই বা তারা এই এড দেখাবে? উত্তর হোলো গুগল। গুগলের এডওয়ার্ড কোম্পানী CPC (cost per click) নির্ভর একটি এডভারটাইজিং কোম্পানী। বিশ্বের বড় বড় বিজ্ঞাপন দাতা তাদের সার্ভিস নিয়ে থাকে। তারা তাদের এডভারটাইজ গুলো শর্ত সাপেক্ষে এডওয়ার্ড কে দেয় এবং গুগল এডওয়ার্ড সেই এডগুলোকে তার এডসেন্স এর পাবলিশারদের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে প্রদর্শন করে থাকে।

সিপিএম বিজ্ঞাপন থেকে আয় করতে পারেনঃ

আপনার ব্লগে যদি প্রচুর ভিজিটর থাকে এবং আপনার প্রচুর ভিজিটর থেকে আপনি যদি বিজ্ঞাপনে ব্যাবহার করে আয় না করতে পারেন তবে সিপিএম বিজ্ঞাপন আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ । সিপিএম বিজ্ঞাপন ব্যাবহার করে আপনি প্রতিহাজার ভিজিটরের জন্য ৩ থেকে ৮ ডলার আয় করতে পারবেন । ধরুন আপনার ব্লগে যদি দৈনিক গড়ে ১০ হাজার ভিজিটর আসে তবে আপনি দৈনিক ৫০ ডলার আয় করতে পারেন ।

পন্যের রিভিউ করে আয়ঃ

পন্য রিভিউ করে আয় করা খুবই সহজ একটি পদ্ধতি । আপনার ব্লগটি যদি বিজ্ঞাপন্দাতাদের পছন্দ হয় তবে তারা আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এবং আপনি পন্য রিভিউ এর জন্য কত টাকা নিতে চান সেসম্পর্কে তারা বিস্তারিত জানতে চাইবে । আপনি প্রয়োজনে আপনার ব্লগের বিজ্ঞাপন নামে একটি পাতা তৈরি করতে পারেন সেখানে পন্য রিভিউ এর জন্য কি পরিমান অর্থ নিতে চান তা তালিকাভুক্ত করুন ।

এফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে আয়ঃ

আপনি ব্লগের জন্য এফিলিয়েট মার্কেটিং পদ্ধতির প্রয়োগ করতে পারেন ।মনে রাখবেন এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরুর পূর্বে আপনাকে মার্কেট এনালাইসিস করতে হবে । ধরুন আপনি বাংলাদেশের অথবা ইন্ডিয়া, পাকিস্থান এর পাঠক বেশি পাচ্ছেন তাহলে এই পদ্ধতি আপনার জন্য কোন কাজেই লাগবেনা কারন এই উন্নয়নশীল বা মধ্যবিত্ত দেশের জনগন কিন্তু অনলাইনে পন্য বা সেবা সাধারনত ক্রয় করেনা তাই এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরুর পূর্বে মার্কেট নিয়ে গবেষণা করাটা জরুরী।

ব্লগ থেকে আয় বই লিখে আয়ঃ

ইবুক থেকে আয় করা একটি খুবই জনপ্রিয় পদ্ধতি । আপনি যদি ভালো লেখক হন তবে সহজেই ইবুক লিখে আয় করতে পারেন । ইবুক থেকে আয় একটি চলমান প্রক্রিয়া । আপনার বইটি যত বিক্রয় হবে আপনি তত বেশি মুনাফা পাবেন । যদি আপনি এই পদ্ধতিতে সফল হতে পারেন তবে একটি বই আপনাকে আজীবন মুনাফা দিয়ে যাবে ।

নতুন ব্লগ ব্যাবহারকারিদের জন্য গুগল এডসেন্স এপ্রুভ করা খুবই কঠিন তাই বলে কি অল্প ভিজিটর নিয়ে নতুন ব্লগারদের অর্থ উপার্জন থেমে থাকবে ?

না । নতুন ব্লগারদের জন্য গুগল এডসেন্স এর মত বিকল্প একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে যার নাম “ক্লিকসর” । ক্লিকসর একটি প্রতিষ্ঠান যারা বিজ্ঞাপনদাতাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত বিজ্ঞাপনসমুহ প্রকাশকদের অর্থাৎ ব্লগারদের দিয়ে থাকে ব্লগাররা এই বিজ্ঞাপন তাদের ব্লগের মাধ্যমে প্রচার করতে থাকে এবং তা থেকে আয় করে থাকে এটি ঠিক গুগল এডসেন্স এর মতই কাজ করে থাকে। ক্লিকসর নতুনদের জন্য একটি খুব ভাল মাধ্যম যা ব্যাবহার করে আপনি সহজেই অর্থ উপার্জন করতে পারেন। নতুন ব্লগাররা ক্লিকসরে একাউন্ট করুন।

Free WordPress Themes, Free Android Games